একটি প্রোগ্রাম উন্নয়নের ৭টি ধাপ রয়েছে।

১। সমস্যা নির্দিষ্টকরণ

২। সমস্যা বিশ্লেষণ

৩। প্রোগ্রাম ডিজাইন

৪। প্রোগ্রাম রচনা বা কোডিং

৫। প্রোগ্রাম বাস্তবায়ন

৬। প্রোগ্রামের দলিল তৈরি বা ডকুমেন্টেশন

৭। প্রোগ্রাম রক্ষণাবেক্ষণ  

১। সমস্যা নির্দিষ্টকরণঃ প্রোগ্রাম উন্নয়নের প্রথম ধাপ হচ্ছে সমস্যা সঠিকভাবে নির্দিষ্ট করা। কি ধরণের সমস্যা সমাধানের জন্য প্রোগ্রাম রচনা করতে হবে, কি ধরণের ইনপুট প্রয়োজন হবে এবং আউটপুট কি লাগবে ইত্যাদি তথ্য সঠিকভাবে নির্দিষ্ট করতে হবে।

২। সমস্যা বিশ্লেষণঃ একটি সমস্যার অনেকগুলো সমাধান আসতে পারে, কিন্তু কোন ধরনের সমাধান কার্যকরী হতে পারে তা সমস্যার ধরণ বুঝে ভালোভাবে পর্যালোচনা/বিশ্লেষণ করতে হবে।

৩। প্রোগ্রাম ডিজাইনঃ প্রোগ্রাম উন্নয়নের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হল প্রোগ্রাম ডিজাইন। সমস্যা বিশ্লেষণের পর এ ধাপের কাজ। অ্যালগরিদম ও ফ্লোচার্ট এর সাহায্যে প্রোগ্রাম ডিজাইন করা হয়। এ ধাপে প্রোগ্রামের ইনপুট, আউটপুট ও ইনপুট-আউটপুট এর মধ্যে সম্পর্ক ডিজাইন করা হয়।  

৪। প্রোগ্রাম রচনা বা কোডিং: এই ধাপে অ্যালগরিদম ও ফ্লোচার্ট এর ডিজাইন অনুযায়ী প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যবহার করে কম্পিউটারের বোধগম্য ভাষায় প্রোগ্রাম রচনা করতে হবে।

৫। প্রোগ্রাম বাস্তবায়নঃ কোডিং এর পরের ধাপ প্রোগ্রাম বাস্তবায়ন। এ ধাপে সম্পূর্ণ প্রোগ্রামটি টেস্টিং, ডিবাগিং এর মাধ্যমে পরীক্ষা করে দেখতে হবে এবং ত্রুটি সংশোধন করতে হবে।

৬। প্রোগ্রামের দলিল তৈরি বা ডকুমেন্টেশনঃ এই ধাপে প্রোগ্রামটি কিভাবে রচনা করা হল, কিভাবে ব্যবহার করতে হবে, কি উদ্দেশ্যে তৈরি করা, ভবিষ্যতে কিভাবে পরিবর্তন করা যাবে ইত্যাদি যাবতীয় বিষয় লিপিবদ্ধ করতে হয় যাকে প্রোগ্রামের ডকুমেন্টেশন বলা হয়।   

৭। প্রোগ্রাম রক্ষণাবেক্ষণঃ এটি সর্বশেষ ধাপ। প্রোগ্রামটি পুনরায় ব্যবহারের জন্য, ভবিষ্যতে প্রোগ্রামটি আধুনিকীকরণের জন্য, প্রয়োজন অনুযায়ী পরিবর্তন ইত্যাদি যাবতীয় কাজ প্রোগ্রাম রক্ষণাবেক্ষণের অংশ। 

Advertisements

advertise

Copyright © Tutorials Valley